পদার্থ বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিংস বলেছেন পৃথিবী ধ্বংসের শেষ তারিখ

আপনারা নিশ্চয়ই বিখ্যাত পদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন হকিংসের নাম শুনেছেন । যাকে বিখ্যাত বিজ্ঞানী আইনস্টাইনের সাথে তুলনা করা হয় । তিনি যে সফল রিসার্জ করেছিলেন এবং তা নিয়ে যা ভবিষ্যৎ বাণী করেছিলেন তা হয়তো আপনাদের কাছে আজও অজানা । তিনি আমাদের এই পৃথিবীকে নিয়ে পাঁচটি ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন যেগুলি হয়তো আপনারা জানেন না । স্টিফেন হকিংসের ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী পৃথিবীতে আমাদের টিকে থাকা মুশকিল হয়ে উঠবে । তো চলুন আজ আমরা এই ভিডিওতে স্টিফেন হকিংসের সেই ৫ টি ভবিষ্যৎ বাণী সম্পর্কে জানার চেষ্টা করি ।

রোবট করবে মানুষের উপর অধিকার । রোবটকে আধুনিক মানব সভ্যতার কাছে একটি বিপদের আশঙ্কা বলে মনে করেছিলেন স্টিফেন হকিংস । স্টিফেন হকিংসের মত অনুসারে রোবট এতটাই অ্যাডভান্স হয়ে যাবে যে রোবট তাদের নিজেদের সভ্যতা তৈরি করবে এবং মানুষকে নিয়ন্ত্রণ করতে শুরু করবে । আগামী দিনে এই রোবট আমাদের উপকারে আসবে নাকি আমাদের জন্য বিপদ নিয়ে আসবে । সেটা তো আসছে সময়ই বলে দেবে ।

আগামী একশ বছরের মধ্যে মানুষ পৃথিবী ছাড়বে অর্থাৎ তিনি বলেছিলেন আগামি একশো বছরের মধ্যে মানুষ মহাকাশে প্রাণের অস্তিত্বের খোঁজ পেয়ে যাবে এবং অন্য গ্রহে যাতে বসবাস করা যায় সেই ব্যবস্থা করে ফেলবে । কারণ আগামী ১০০ বছরের মধ্যে পৃথিবীর আবহাওয়া সম্পূর্ণরূপে পাল্টে যাবে এবং পৃথিবী জীবকূলের বসবাসের জন্য হয়তো একেবারে অযোগ্য হয়ে যাবে ।

মানুষের মধ্যে ভেদাভেদ আর হিংসা পৃথিবীতে একটা বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি করবে । স্টিফেন হকিংস বলেছিলেন আগামী কয়েকশো বছরের মধ্যে মানুষের মধ্যে হিংসা এত পরিমাণে বৃদ্ধি পাবে যে মানুষ একচ্ছত্রভাবে অধিকারের জন্য একে অপরের সাথে লড়াই করতে থাকবে ।

পৃথিবী শুক্র গ্রহে পরিণত হবে স্টিফেন হকিংস এর ভবিষ্যৎ বাণী অনুসারে পৃথিবীর তাপমাত্রা শুক্র গ্রহের থেকেও বেশি হয়ে যাবে । আমরা সকলেই জানি শুক্র গ্রহকে সবথেকে গরম গ্রহ বলা হয়ে থাকে । তাহলে কি পরিস্থিতি হতে পারে ইতিমধ্যেই হয়তো আপনি ধারণা করতে পেরেছেন অর্থাৎ পৃথিবীর তাপমাত্রা আড়াইশো ডিগ্রী সেলসিয়াস হয়ে যাবে যা পৃথিবীতে বসবাসকারী প্রাণীরা সহ্য করতে পারবেনা ।

পৃথিবী একটি আগুনের গোলায় পরিণত হবে । আগামী ৬০০ বছরের মধ্যে পৃথিবীর তাপমাত্রা প্রচন্ড পরিমানে বাড়তে শুরু করবে যার কারনে পৃথিবী একটি আগুনের গোলায় পরিণত হবে ।

Leave a Comment