মানবদেহের কিছু গোপন জায়গার অজানা রহস্য

মানব দেহের গঠন খুবই জটিল যাকে বোঝা খুবই কঠিন । যেগুলি  বিজ্ঞানীরা আজ প্রতিনিয়ত  জানার চেষ্টা করছে । আমাদের শরীরে এমন অনেক আশ্চর্য্ ক্ষমতা আছে যেগুলি সম্পর্কে আমরা একেবারেই অজ্ঞ । আপনি কি জানেন আমাদের পেটের ভিতর যে হাইড্রোক্লোরিক এসিড আছে তা ব্লেডকেও পচিয়ে  দিতে পারে । নিশ্চয়ই জানেন না ? আজ আমরা আমাদের শরীরের কিছুই এমন কতকগুলি তথ্য জানার চেষ্টা করব যেগুলি পৃথিবীর বেশিরভাগ মানুষই জানে না ।

হার্ড

heart

আপনি কি জানেন আমাদের শরীরের সকল নার্ভকোশগুলি যদি জুড়ে দেওয়া যায় তাহলে তা লম্বায়  প্রায় ৬০ হাজার মাইল মানে প্রায় ৯০ হাজার কিলোমিটার হবে । এবারে মনে করুন একটা মেশিনকে ১ কিলোমিটার দূরত্বে  জল নিয়ে যেতে হবে তাহলে ওই মেশিনের কতটা বেগ পেতে হয় আর ১০০০ কিলোমিটার জল নিয়ে যাওয়ার জন্য তো মহাকায় পাম্পকেও কম বলে মনে হবে । এবার একটু ভেবে দেখুন আমাদের এই  ছোট্ট হার্ট্ যাকে আমরা ভালোবেসে হৃদয় বলি ।

এই প্রাকৃতিক পাম্প আমাদের শরীরের টোটাল ৯০ হাজার কিলোমিটার দূরত্ব পর্যন্ত রক্ত ছড়িয়ে দেয় ।সেটা আবার কোন দিন ক্লান্ত না হয়ে বিশ্রাম না নিয়ে । হলো না আশ্চর্য । আর আমাদের শরীরে প্রতিদিন প্রায় এক লক্ষ বার হৃতস্পন্দন হয় ।আর সায়েন্টিস্টদের রিসার্চ্ অনুযায়ী আমাদের হার্ট অ্যাটাক সোমবারের দিন বেশি হয়ে থাকে আর সব থেকে কম শনিবার । এর পিছনে কি কারণ আছে যদি জানতে চান তাহলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন । এর জন্য আমি একটা রেপারেট ভিডিও বানিয়ে দেবো ।

গ্রোথ

জন্মের পর থেকে আমাদের শরীরের প্রতিটি অঙ্গ তার প্রয়োজন অনুসারে বৃদ্ধি পায় । কিন্তু আমাদের শরীরের একটি অংশ এমনও আছে যেটি কখনোই বৃদ্ধি পায় না আর এটি হলো আমাদের চোখের মাঝে অবস্থিত পুপিল আর্থাৎ কালো রংয়ের পুতলিটি । যেটি জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত একই সাইজের থাকে,কারণ এখানে কোন ব্লাট সাপ্লাই হয় না । অন্যদিকে আমাদের শরীরের এমন অঙ্গও আছে যেগুলি আমাদের মৃত্যুর আগে পর্যন্ত বৃদ্ধি পায় আর তা হলো আমাদের কান এবং নাক । যদিও এদের বৃদ্ধি পাওয়ার গতি খুবই মন্থর ।

স্কিন

স্কিন

আমাদের স্কিনের এক ইঞ্চি অংশে প্রায় তিন কোটি ব্যাকটেরিয়া বসবাস করে ।তাহলে চিন্তা করুন আমাদের পুরো শরীরে কত ব্যাকটেরিয়া থাকতে পারে ।কিন্তু ভয় পাওয়ার কিছু নেই কারণ এই সব ব্যাকটেরিয়াদের মধ্যে বেশির ভাগ ক্ষতিকারক নয় । প্রতিটি ব্যক্তির ফিঙ্গারপ্রিন্টর মত তার জিভের টাঙ্ক পৃন্টও একদই ইউনিক হয়ে থাকে ।

আই

আই

আমাদের চোখের আইহেয়ার নিঃসন্দেহে আমাদের চোখকে বাইরের ধুলোবালি থেকে রক্ষা করে । কিন্তু আপনি কি জানেন আপনার এই আইহেয়ারের নিচে একটি দানব বসবাস করে । যার নাম ডেমোডেক্স । শুধু এই যে ডেমোডেক্সই বসবাস করে এমনটা মোটেই নয় তার সাথে বিভিন্ন প্রকারের জীবাণু আপনার আইহেয়ারে  বসবাস করে । যদি আপনি কোন মাইক্রোস্কোপের সাহায্যে আপনার চোখের আইহেয়াকে দেখেন তাহলে আপনি এটি দেখতে পাবেন । কিন্তু আপনি ভুলেও কখনো মাইক্রোস্কোপ দিয়ে এই দানবটিকে দেখার চেষ্টা করবেন না তাহলে হয়তো নিজেই নিজেকে ঘৃণা করতে শুরু করবেন ।

স্নেজ

যখন আমরা হাঁচি দেয় তখন এক সেকেন্ডের জন্য আমাদের হৃৎপিণ্ডকে ছেড়ে সম্পূর্ণ বডি কাজ করা বন্ধ করে দেয় । হাঁচি দেওয়ার সময় সর্বদা আমাদের চোখ বন্ধ হয়ে যায় । আর নাক এবং মুখ থেকে ১২০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টার গতিতে হাওয়া বের হয় ।

প্রতিনিয়ত এই রকম হাজারও অবাক করা ঘটনা ঘটছে আমাদের শরীরের ভিতরে যার বেসির ভাগই আমরা জানি না। তাই আমরা চেষ্টা করছি এসব ঘটনাগুলো আপনাদের সামনে তুলে ধরার। এই সব অবাক করা তথ্য সম্পর্কে জানতে আমাদের সাথেই থাকুন।

Leave a Comment