বায়োস (BIOS) এবং ইউইএফআই (UEFI) এর পার্থক্য কি?

বর্তমানে নতুন কম্পিউটার গুলোতে বায়োস (BIOS) এর পরিবর্তে নতুন ইউইএফাই (UEFI) ব্যবহার করা হচ্ছে। বায়োস এবং ইউইএফাই উভয়ে লো লেভেল সফটওয়্যার হোলেও এই দুইয়ের মদ্ধে বেশ কিছু পার্থক্য আছে । কম্পিউটার চালু হওয়ার পূর্বে এগুলো কাজ করে। কিন্তু ইউইএফাই বায়োসের তুলনায় অনেক আধুনিক, মর্ডান, দ্রুত এবং নিরাপদ।

বায়োস কি?

বায়োস কি?

বায়োস এর পূর্নরুপ হল ব্যাসিক ইনপুট আউটপুট সিস্টেম (Basic Input Output System)। এটি ১৯৭৫ সালে প্রথম ব্যবহার করা হয়। বায়োস একটি লো-লেভেল সফটওয়্যার যা কম্পিউটারের মাদারবোর্ডে যুক্ত থাকে। কম্পিউটার স্টার্ট হবার সময় বায়োস লোড হয় এবং এর কারনেই আপনার কম্পিউটার স্টার্ট হয়। কম্পিউটার স্টার্ট হবার আগে এটি চেক করে দেখে সকল হার্ডওয়্যার এবং সিস্টেম ঠিকমত কাজ করছে কিনা, যদি কাজ করে তাহলে বুটলোডার চালু হয় তারপর বুটলোডার ইন্সটল করা অপারেটিং সিস্টেমে কম্পিউটার চালু করে, কিন্তু যদি কম্পিউটার ডুয়াল বুট করা থাকে তাহলে আপনি যে অপারেটিং সিস্টেমে বুট করতে চান সেই অপারেটিং সিস্টেমে কম্পিউটার চালু হয়। আর যদি কোন হার্ডওয়্যার/সিস্টেম ঠিকমত কাজ না করে তাহলে একটি বিপ সাউন্ড হয়, ভিন্ন ভিন্ন সমস্যার জন্য ভিন্ন ভিন্ন সাউন্ড এক্ষেত্রে আপনাকে জানতে হবে কোন সাউন্ডের কি মানে। বায়োস থেকে আপনি বিভিন্য হার্ডওয়্যার কনফিগারেশন করতে পারেন। বায়োসে ঢুকার জন্য একটি নির্দিষ্ট বাটন চাপতে হয় (বিভিন্য কম্পিউটারে বিভিন্য বাটন নির্ধারন করা থাকে)।

ইউইএফাই কি?

ইউইএফাই কি?

ইউইএফআই এর পূর্নরুপ হল ইউনিফাইড এক্সটেনসিবল ফার্মওয়্যার ইন্টা‌র্ফেস (Unified Extensible Firmware Interface)। এটি ১৯৯৮ সালে তৈরি করা হলেও ২০০৫ সালে প্রথম ব্যাবহার করা হয়। বায়োসের পরিবর্তে এখন কম্পিউটারে এটি ব্যবহার করা হয় এবং এটিও মাদারবর্ডে যুক্ত থাকে। সাধারনত এটিও বায়োসের মতই কাজ করে। কম্পিউটার চালু হওয়ার সময় সকল হার্ডওয়্যার এবং সিস্টেম চেক করে দেখে কোন সমস্যা না থাকলে কম্পিউটার সফলভাবে স্টার্ট হয় আর ডুয়াল বুট  থাকলে কোন অপারেটিং সিস্টেমে স্টার্ট হবে তা জানতে চায়। কিন্তু যখন কোন হার্ডওয়্যারে সমস্যা থাকে তখন এটি বায়োসের মত বিপ সাউন্ড করেনা বরং কোন হার্ডওয়্যারে/সিস্টেমে কি সমস্যা তা দেখায় এক্ষেত্রে আপনাকে কোন সাউন্ডের মানে জানতে হয়না। এছাড়াও এর ইন্টার্ফেস অনেক সুন্দর এবং সহজ যা যে কেও সহজে বুজতে পারে এবং সেটিংস করতে পারে।

বায়োস এবং ইউইএফআই

বায়োস নিয়ে নতুন করে বলার মত আর কোন কিছু নেই কিন্তু ইউইএফআই এর আরো অনেক সিস্টেম যুক্ত হয়েছে যা সত্যি অনেক মর্ডান এবং অনেক প্রয়োজনীয়।

১। সিকিউর বুট ডিসেবল ঃ সিকিউর বুট একটি সিকিউরিটি সিস্টেম যা বায়োসে ছিল কিন্তু আপনি চাইলেও তা বন্ধ করতে পারতেন না। যদিও এটি অনেক উপকারি , এর কাজ হল অপারেটিং সিস্টেমকে ভাইরাস, ম্যালওয়্যারের হাত থেকে রক্ষা করা। তবুও সিকিউর বুট অন থাকার কারনে কম্পিউটারে লিনাক্স বা অন্নান্য অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল করতে সমস্যা হত যা আর হবেনা।

২। রিমুভেবল মিডিয়া থেকে বুট ঃ ইউএফআই সিস্টেমে আপনি রিমুভেবল মিডিয়া যেমন ইউএসবি পেনড্রাভ থেকে কম্পিউটার বুট করতে পারেন। যা বায়োসে সম্ভব নয়।

৩। লিগেসি বায়োস মোড ঃ এটি একটি অসাধারন সিস্টেম। ধরুন আপনি ইউইএফআই বুঝছেন না কিন্তু বায়োস বুঝেন তাহলে আপনি এই মোড অন করে বায়োসের মত কাজ করতে পারবেন।

৪। হার্ডওয়্যার ইনফর্মেশন ঃ ইউইএফআই তে আপনি হার্ডওয়্যারের সকল তথ্য পাবেন যেমন, কম্পিউটারের তাপমাত্রা, বৈদ্যুতিক ভোল্টেজ, কুলিং ফ্যানের গতি, র‍্যাম, সিপিইউ ইত্যাদি। এছাড়াও সকল হার্ডওয়্যারের সেটিংস পরিবর্তন করতে পারবেন।

শুধু এগুলোই নয় এছাড়াও আরো অনেক নতুন ফিচার আছে যা আপনি ব্যাবহার করলেই বুঝতে পারবেন। কেমন লাগল জানাতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ

Leave a Comment