বলিউডের ৫টি লেসবিয়ান সিনেমা

বলিউডে সমকাম খুব নতুন বিষয় নয়। আগেও এ নিয়ে তৈরি হয়েছে ছবি।  বেশিরভাগ সময়ই সেটা ভারতের রাজনীতির সাথে গিয়ে ধাক্কা খেয়েছে। বেরিয়ে পড়েছে ছবির আড়ালে থাকা কোন রাজনৈতিক ব্যাপার। হয়েছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। তবে তারপরেও থেমে থাকেন নি নির্মাতারা।

এখানে থাকছে বলিউডের ৫টি ছবির কথা, যেগুলি মেয়েদের সমকামী যৌনতা নিয়ে আবর্তিত হয়েছে।

১) দেড় ইশকিয়া

মাধুরী ও হুমা কোরেশী

অভিষেক চাওভের দেড় ইশকিয়াতে  দেখা পাওয়া যায় বলিউডের নতুন সমকামী জুটি মাধুরী ও হুমা কোরেশীকে।

প্রথম দিকে যদিও বিষযটি আড়ালে থাকে এবং দর্শকদের আচ্ছন্ন করে রাখা হয় হুমা-আরশাদ এবং মাধুরী-নাসিরুদ্দীনের ভালোবাসার কাহিনীতে। শেষ দৃশ্যে এসে প্রকাশ পায় মাধুরী আর হুমার এই সম্পর্ক। ছবির শেষে এসে চমকে যেতে হয় দর্শককে।

২) হিরোইন

শাহানা গোস্বামী ও কারিনা কাপুর

বক্স অফিস হিট করা ছবি হিরোইনে  মাঝামাঝি একটা দৃশ্যে এসে কারিনা এবং শাহানা গোস্বামীর শারীরিক সম্পর্কের মাধ্যমে নিজের ছবিতে লেসবিয়ানিজম ফুটিয়ে তোলেন পরিচালক মাধুর ভাণ্ডারকর।

যদিও খুব অল্প সময়ের জন্য, কিন্তু ছবিতে শাহানার সাথে এক রাত যাপন করেন কারিনা। ব্যাপারটি খুব বেশি আস্বাভাবিক কিছু নয়। কিন্তু এরকম একটি দৃশ্যে কারিনা কাপুর খানের অভিনয় করাটা অনেকের কাছেই আবিশ্বাস্য বলে মনে হয়েছে।

৩) ফায়ার

শাবানা আজমী ও নন্দিতা দাস

১৯৯৬ সালে দীপা মেহতা তার নতুন ছবি ফায়ার  তৈরি করেন। যেখানে ফুটিয়ে তোলা হয় দুজন নারীর কথা। তারা একই পরিবারের দুই ভাইকে বিয়ে করেন। কিন্তু পরে নিজ নিজ স্বামীর কাছ থেকে অবহেলিত হয়ে অন্য একটি সম্পর্ক গড়ে তোলেন নিজেদের মধ্যে।

দুই নারীর চরিত্রে অভিনয় করেন শাবানা আজমী এবং নন্দিতা দাস।

লেসবিয়ান শব্দটি এখন আর ততটা আপত্তির নেই বলিউডে। কিন্তু সেসময় অতটা সাহসী অভিনয় সহ্য করাটা বেশ কঠিনই হয়ে পড়েছিল সবার পক্ষে। পরে ছবিটির বিরুদ্ধে শিব সেনারা আন্দোলন করে।

৪) গার্লফ্রেন্ড

অমৃতা ও ইশা

অমৃতা আরোরা এবং ইশা কাপুর অভিনীত গার্লফ্রেন্ড  ছবিতে দুজন নারীর ভেতরকার সম্পর্ক দেখানো হয়।

যেখানে অমৃতা ও ইশা নিজেদের সব কথা প্রকাশ করার জন্য কোন পুরুষের চাইতে নারীকেই ভালো বলে মনে করে। ছবিটি মুক্তি পায় ২০০৪ সালে।

৫) রাগিনী এমএমএস২

সানি লিওন ও সন্ধ্যা মৃদুল

বালাজি টেলিফিল্মস এবং এএলটি এন্টারটেইনমেন্টের ছবি রাগিনী এমএমএস। এর সিক্যুয়েল রাগিনী এমএমএস২ তে দর্শকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করার সব ধরনের চেষ্টাই করা হয়েছে।

এর অন্যতম হল, সন্ধ্যা মৃদুল এবং সানি লিওনের মধ্যকার সম্পর্ক তাদের একটি চুম্বন দৃশ্যের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা।

Leave a Comment