লাইফ স্টাইলস্বাস্থ্য

টেস্টোস্টেরন হরমোন বৃদ্ধির উপায় 

কী খেলে আপনার শরীরের টেস্টোস্টেরন হরমোন বাড়বে?

আমাদের শরীরে নানান হরমোন উৎপন্ন হয়ে থাকে যা আমাদের দেহে ও মনে নানান পরিবর্তন তৈরি করে। এদেরই মধ্যে অন্যতম হলো আমাদের শরীরে পাওয়া টেস্টোস্টেরন হরমোন। এই হরমোন আমাদের শরীরের নানান পরিবর্তনের কারণ আর সকল কারণের মধ্যে অন্যতম কারণ হলো চুল পরা ও যৌন সমস্যা। স্বাস্থ্যকর এবং সুখী যৌন জীবন কেই বা না চায়। পুরুষের যৌন অক্ষমতা যেমন – কম বীর্যপাত, অকাল বীর্যপাত এবং দম্পতিদের মধ্যে শারীরিক মিলামেশার প্রতি আকর্ষণ বা ইচ্ছে শক্তির অভাব ইত্যাদি সমস্যাগুলো বর্তমানে অনেক গভীর সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেকেই আবার নানান হোমিওপ্যাথি ও আ্যালোপ্যাথিক কতো রকমেরই না চিকিৎসা নিচ্ছেন। কিন্তু সত্যি বলতে কি জানেন, আমাদের শরীরের সকল প্রকার সমস্যাই হয়ে থাকে সঠিক খাবার গ্রহণের অভাবে। সঠিক খাবারই পারে আমাদেরকে সব রকমের সমস্যার হাত থেকে রক্ষা করতে।

তাই আজকে আমরা এমন কিছু খাবারের তালিকা প্রস্তুত করেছি যা আপনার শরীরে থাকা টেস্টোস্টেরন হরমোন বৃদ্ধির পাশাপাশি আপনাকে নানান শারীরিক সমস্যার কবল হতে হেফাজতে রাখবে। তাই চলুন জেনে নিই কোন খাবার গ্রহন করলে আপনার শরীরের টেস্টোস্টেরন হরমোন বাড়বে?

টেস্টোস্টেরন হরমোন সম্পর্কে কিছু ইনফোরমেশন

টেস্টোস্টেরন প্রধান পুরুষ হরমোন যা শুক্রাশয়ের লিডিগ কোষ (Leydig Cell) থেকে উৎপন্ন হয়। টেস্টোস্টেরন একটি এন্ড্রোজেন যা পুরুষ এবং মহিলা উভয়েই পাওয়া যায়। পুরুষদের মধ্যে এটি বেশিরভাগই টেস্টোস্টেরন হিসাবে থাকে, কিন্তু মহিলা দেহে টেস্টোস্টেরন দ্রুত ইস্ট্রোজেনে রূপান্তরিত হয়ে পরে। মহিলাদের মধ্যে, টেস্টোস্টেরন প্রজনন বৃদ্ধি এবং সাধারণ স্বাস্থ্যের উন্নয়নে ভূমিকা পালন করে।

সকল স্তন্যপায়ী,পাখি সরীসৃপ প্রাণীর শুক্রাশয়ে এটি উৎপন্ন হয়। এবং নারীর ক্ষেত্রে এটি তাদের ডিম্বাশয় থেকে উৎপন্ন হয়, যদিও স্বল্প পরিমাণ অ্যাড্রেনাল গ্রন্থি থেকে ক্ষরিত হয়। 

টেস্টোস্টেরনের প্রভাবকে লিঙ্গিক এবং অ্যানাবলিক এই দু ভাগে ভাগ করা যায়ঃ

—মাংসপেশি বৃদ্ধি,হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধি, হাড়ের পূর্ণতা প্রাপ্তিতে কাজ করা – এসব অ্যানাবলিক কাজ।

—যৌন অঙ্গের পূর্ণতা প্রদান করা, বিশেষ করে ফিটাসের শিশ্ন এবং শুক্রথলি তৈরি এবং জন্মের পরে বয়ঃসন্ধিকালে কণ্ঠস্বর ভারি হওয়া,দাড়ি গজানো থেকে শুরু করে বগলে চুল উঠা – এসব এন্ড্রোজেনিক কাজ

এসবের অনেক কিছুই পুরুষের সেকেন্ডারি যৌন বৈশিষ্ট্য।

একজন পুরুষের জন্য টেস্টোস্টেরন এর প্রয়োজন সাধারণত প্রজনন অঙ্গ যেমন শুক্রাশয় (Testis) বর্ধনের পাশাপাশি গৌণ বৈশিষ্ট্য যেমন মাংসপেশি,শরীরের লোম বৃদ্ধি। তবে একজন পুরুষের মাঝে টেস্টোস্টেরন বিপাক হার একজন নারীর তুলনায় ২০ গুণ বেশি থাকে।

যেসব খাবার আপনার শরীরের টেস্টোস্টেরন বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে 

বয়শ তিরিশ বছর পেরোলেই ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে পুরুষদের শরীরে টেস্টোস্টেরন হরমোন। এতে করে নানান সমস্যা যেমন স্মৃতি শক্তি হ্রাস, লিঙ্গোত্থানে সমস্যা, যৌন অক্ষমতা সহ আরও নানান সমস্যা। তাই হরমোন নিঃসরণ বৃদ্ধির ক্ষেত্রে সাহায্য করে এমনই সব খাবার খাওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। 

 খাবারের তালিকাঃ

মধু

মধু থেকে প্রাকৃতিক নিরাময়কারী উপাদান বোরোন পাওয়া যায়, যা টেস্টোস্টেরনের পরিমাণ বাড়াতে এবং নাইট্রিক অক্সাইডের মাত্রা ঠিক রাখতে সহায়তা করে। এছাড়াও আপনার যৌন ক্ষেত্রেও মধু অনেক উপকারী।

বাধাকপি

বাধাকপিতে অনেক পরিমাণে ভিটামিন ও খনিজ উপাদান। এছাড়াও এতে পাওয়া যায় আছে ইনডোল থ্রি-কার্বিনল যা স্ত্রী হরমোন ওয়েস্ট্রজেনের পরিমাণ কমিয়ে টেস্টোস্টেরন হরমোনকে বেশি কার্যকর করে তোলে।

ডিম

ডিম যে অনেক উপকারী তা আমরা সকলেই জানি। কিন্তু আপনি কি জানেন ডিমে থাকা স্যাচারেইটেড ফ্যাট, ওমেগা থ্রিএস, ভিটামিন ডি, কলেস্টেরল এবং প্রোটিন আমাদের দেহে টেস্টোস্টেরন হরমোন তৈরির জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। 

ঝিনুক

ঝিনুকে প্রচুর পরিমানে জিংক থাকে যা আমাদের দেহে টেস্টোস্টেরন তৈরি করতে গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়াও ঝিনুকে প্রচুর পরিমাণ খনিজ উপাদানও পাওয়া যায় যা শরীরে টেস্টোস্টেরনের পরিমাণ বাড়াতে সাহায্য করে।

আঙুর

প্রতিদিন একথোক লাল আঙুর খাওয়া গেলে টেস্টোস্টেরনের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়, এছাড়াও শুক্রাণুর তৎপতরতা উন্নত করে আর শক্তিশালী করে।

মাংস

যারা একেবারেই মাংস খান না তাদের শরীরে টেস্টোস্টেরনের পরিমাণ অনেকটাই কম থাকে। এছাড়াও আমাদের শরীরের সঠিক বিকাশ এবং নানান পুষ্টির জন্যেও মাংস অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। 

চিজ

চিজ অনেকেরই প্রিয় খাবার। বাংলাদেশে চিজের দাম তুলনামূলক ভাবে একটু বেশি হলেও চিজ কিন্তু আমাদের শরীরে টেস্টোস্টেরন হরমোন বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

শেষ কথা 

এমন আরও অনেক খাবার আছে যেগুলো আমাদের শরীরে টেস্টোস্টেরন হরমোনের পরিমাণ বাড়িয়ে তোলে। তবে আজকের এই তালিকায় এই খাবারগুলোই তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। আশা করি এই খাবারের তালিকা আপনাদের উপকারে লাগবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button